চসিক নির্বাচনে ৮ কেন্দ্রের ফলাফল

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন ডেস্ক

জানুয়ারি ২৭ ২০২১, ১৭:০৩

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ৬ কেন্দ্রের ফলাফলে এগিয়ে আছে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী। ৬ কেন্দ্রে তিনি পেয়েছেন ১৫০১ ভোট। তার প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির ডা. শাহাদাত হোসেন পেয়েছেন ১৮৪ ভোট।মোট কেন্দ্র ৭৩৫টি। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেল ৪ টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। এর আগে সকাল ৮টায় ভোট শুরু হয়ে একটানা ৪টা পর্যন্ত চলে।ভোট শেষে শুরু হয়েছে গণনা। এবার সিটি নির্বাচনে প্রথমবারের মতো সবকটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএম মেশিনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থকদের মধ্যে পৃথক সংঘর্ষে দুই জন নিহত এবং আরো অনেকে আহত হয়েছেন।সকাল সাড়ে দশটার দিকে নগরের পাহাড়তলীতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ওয়াসিম উদ্দিন ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী মাহমুদুর রহমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ফলে এক কর্মী নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আলাউদ্দিন। নিহত আলাউদ্দিন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী মাহমুদুর রহমানের অনুসারী।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (সিএমসিএইচ) পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সংঘর্ষের পর বঙ্গবন্ধু বাংলা স্কুলে ভোটগ্রহণ প্রায় এক ঘন্টা স্থগিত ছিলো বলে নিশ্চিত করেছেন সে কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার।

অন্যদিকে সকালে নগরীর ১২নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর দ্বন্দ্বে আপন ভাইয়ের হাতে খুন হয়েছেন নিজাম উদ্দিন মুন্না নামের এক ছাত্রলীগ কর্মী। সকাল ৮টার দিকে বার কোয়াটার ডায়মন্ড টার্চ কমিউনিটি সেন্টার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পাহাড়তলী থানার ওসি (তদন্ত) রাশেদুল হক, হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাত প্রার্থী। এরমধ্যে রয়েছেন- প্রধান দুই দলের হেভিওয়েট প্রার্থী আওয়ামী লীগের এম রেজাউল করিম চৌধুরী ও বিএনপির ডা. শাহাদাত হোসেন। এছাড়াও রয়েছেন ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী মাওলানা এম.এ মতিন (মোমবাতি), ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আবুল মনজুর (আম), ইসলামিক ফ্রন্টের মুহাম্মদ ওয়াহেদ মুরাদ (চেয়ার), ইসলামী আন্দোলন’র মো. জান্নাতুল ইসলাম (হাতপাখা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী খোকন চৌধুরী (হাতি)।

১৪ সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে প্রার্থী রয়েছেন ৫৭ জন। সাধারণ ৪১ ওয়ার্ডের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ৩৯ ওয়ার্ডে। ১৮নং ওয়ার্ডে হারুনুর রশিদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। আর ৩১ নং আলকরণ ওয়ার্ডে এক কাউন্সিলর প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তবে ওই ওয়ার্ডে মেয়র ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ৩৯ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে লড়ছেন ১৬৮ জন প্রার্থী।


ব্রেকিং নিউজ